জগন্নাথ মন্দির বা সতেরো রত্ন মন্দির - মন্দির দর্শন

জগন্নাথ মন্দির বা সতেরো রত্ন মন্দির

অবস্থানঃ

জেলাঃ কুমিল্লা

সতেরো রত্ন মন্দিরটি কুমিল্লা জেলাশহর থেকে দুই কিলোমিটার দক্ষিন পূর্বে জগন্নাথপুর (খামার কৃষ্ণপুর) নামক গ্রামের জগন্নাথ বাড়িতে অবস্থিত।

ইতিহাসঃ

বাংলাদেশে টেরাকোটা স্থাপত্যের এক অপূর্ব নিদর্শন বহন করে আসছে কুমিল্লার জগন্নাথ মন্দির বা সতেরো রত্ন মন্দির। এই মন্দিরটি খ্রিষ্টীয় ষোড়শ শতাব্দীতে নির্মাণ করা হয়। বর্তমানে মন্দিরে শ্রী জগন্নাথ, সুভদ্রা ও বলরামের যে ত্রিমূর্তি প্রতিষ্ঠিত রয়েছে সেগুলো এককালে ত্রিপুরার রাজ্যের একটি মন্দিরে স্থাপিত ছিল। কথিত আছে, ১৬৮৫ থেকে ১৭১২ খ্রিষ্টাব্দের মাঝামাঝি সময়ে ত্রিপুরার মহারাজা ২য় রত্নমানিক্য এই মন্দিরের নির্মাণকাজ শুরু করেছিলেন। কিন্তু তিনি সেটা সম্পন্ন করে যেতে পারেননি। পরবর্তীকালে ১৭৬১ খ্রিষ্টাব্দে শ্রী শ্রী যুক্ত মহারাজা রাধা কিশোর মাণিক্য বাহাদুর মন্দিরটির নির্মাণকাজ শেষ করেন। কিন্তু রাজগ্রন্থে উল্লেখিত আছে যে, মহারাজ কৃষ্ণমাণিক্য কর্তৃক মন্দিরটি নির্মিত ও বিগ্রহ স্থাপিত হয়েছে। জগন্নাথের এই মন্দিরটি “সপ্তরত্ন মন্দির” নামেও পরিচিত।

আটকোণাকৃতি মন্দিরটি মূলত সতেরো রত্নের সমন্বয়ে গঠিত হলেও বর্তমানে এর অধিকাংশই নষ্ট হয়ে গেছে। আটটি করে মোট সতেরোটি রত্ন ছিল মন্দিরের দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলায়। মন্দিরের অষ্টকোণ বিশিষ্ট ছাতা আকৃতির চূড়াগুলো এই মন্দিরকে অন্য মন্দির থেকে আলাদা করেছে। প্রায় ৫২.৫০ মিটার ব্যসবিশিষ্ট মন্দিরটি বাইরে থেকে দেখলে মনে হবে তিনতলা কিন্তু ভিতরে সিঁড়ি দিয়ে এর পঞ্চম তলা পর্যন্ত উঠা যায়। খিলান আকৃতির কারুকার্য লক্ষ করা যায় মন্দিরের প্রবেশ পথগুলোতে। এছাড়া এর প্রতি তলায় খিলানকৃত জানালা রয়েছে। মন্দিরটি অলংকৃত হয়েছে বিভিন্ন ফুল, লতাপাতা, ঘন্টা ও বিভিন্ন জ্যামিতিক নকশায়। পশ্চিমবঙ্গের সতেরোরত্ন মন্দিরের সাথে কিছুটা পার্থক্য রয়েছে কুমিল্লার এই জগন্নাথ  মন্দিরের।

জেলা শহর থেকে মন্দিরে পৌছানোর উপায়ঃ

কুমিল্লা জেলা শহরের চকবাজার হতে নিয়মিত প্রতিদিন সতেরো রত্ন মন্দিরে যাওয়ার সিএনজি চালিত অটোরিক্সা চলাচল করে, যাতে সময় লাগে প্রায় ২০ মিনিট এবং ভাড়া পড়বে ১০ টাকা জনপ্রতি। এছাড়া রিক্সাতে করেও মন্দিরে আসা যায়।

Puthia Shiv

পুঠিয়া বড় শিব মন্দির

পুঠিয়া বড় শিব মন্দির অবস্থানঃ জেলাঃ রাজশাহীউপজেলাঃ পুঠিয়াগ্রামঃ পুঠিয়ারাজশাহী শহর থেকে ২৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত বিখ্যাত পুঠিয়া রাজবাড়ি দিকে এগোতে

govind and durga mata mandir

শ্রী শ্রী গোবিন্দ ও

শ্রী শ্রী গোবিন্দ ও দুর্গামাতা মন্দির অবস্থানঃ জেলাঃ রাজশাহী উপজেলাঃ বাগমারা রাজা কংস নারায়ণ রায় বাহাদুর কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত শ্রী শ্রী

শ্রী শ্রী হান্ডিয়াল জগন্নাথ

শ্রী শ্রী হান্ডিয়াল জগন্নাথ মন্দির অবস্থান:জেলাঃ পাবনাউপজেলাঃ চাটমোহর উপজেলা সদরের ১৮ কিলোমিটার দক্ষিণ দিকে এর অবস্থান।গ্রামঃ হান্ডিয়ালইতিহাস:ত্রয়োদশ-চতুর্দশ খ্রিষ্টাব্দে বাংলাদেশের অন্যতম

Spread this post
Translate »
error: Content is protected !!